টিএমএসএস গ্র্যান্ড হেল্থ সেক্টরের উদ্যোগে বিশ্ব উচ্চ রক্তচাপ দিবস পালন

টিএমএসএস গ্র্যান্ড হেল্থ সেক্টরের উদ্যোগে গত সোমবার বিশ্ব উচ্চ রক্তচাপ দিবসে ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

গত সোমবার টিএমএসএস গ্র্যান্ড হেল্থ সেক্টরের উদ্যোগে পালিত হয়েছে বিশ্ব উচ্চ রক্তচাপ দিবস। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল ‘‘আপনার রক্তচাপ জানুন, নিয়ন্ত্রণে রাখুন এবং সুস্থ জীবন উপভোগ করুন’’।
বিশ্ব উচ্চ রক্তচাপ দিবস উপলক্ষে সারা দেশের ন্যায় টিএমএসএস গ্র্যান্ড হেল্থ সেক্টর পরিচালিত টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ ও রফাতুল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগ বিভিন্ন কর্মসূচী আয়োজন করে। হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের সামনে সকালে আগত রোগীর লোকজন নিয়ে উচ্চ রক্তচাপ বিষয়ে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। হাসপাতালে আসা রোগী ও রোগীর লোকজনের ফ্রি ব্লাডপেসার চেকআপ ও ১২ টায় ভার্চুয়াল আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ ও রফাতুল্লাহ্ কমিউনিটি হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডাঃ মোঃ আজিজুর রহমান। এসময় ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রাইভেট ফিজিসিয়ান ও প্রফেসর অব মেডিসিন প্রফেসর ডাঃ এবিএম আব্দুল্লাহ। বিশেষ অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন টিএমএসএস’র নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপিকা ড. হোসনে-আরা বেগম, উপ-নির্বাহী পরিচালক-২, রোটা. ডাঃ মোঃ মতিউর রহমান, টিএমএসএস মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ মোঃ শাহজাহান আলী সরকার, টিএমএসএস গ্র্যান্ড হেল্থ সেক্টরের নির্বাহী উপদেষ্টা অধ্যাপক ডাঃ মওদুদ হোসেন আলমগীর পাভেল, টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ ট্রান্সফিউশন মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডাঃ এম এ গফুর, টিএমএসএস গ্র্যান্ড হেল্থ সেক্টরের স্বাস্থ্যসেবা ডোমেইন প্রধান ডাঃ মোঃ আব্দুল হক, টিএমএসএস গ্র্যান্ড হেল্থ সেক্টরের চিকিৎসা শিক্ষা ডোমেইন-১ প্রধান অধ্যাপক ডাঃ অনুপ রহমান চৌধুরী, চিকিৎসা শিক্ষা ডোমেইন-২ প্রধান ডাঃ এএইচএম আক্তারুজ্জামান, টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ ও রফাতুল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ আবু সালেহ মোহাম্মদ বরকতুল্লাহ, সহকারী পরিচালক (হাসপাতাল) ডাঃ এ.কে এম শামছুল আলম। স্পিকার হিসেবে অংশগ্রহণ করেন এসিপি বাংলাদেশ চ্যাপটার এর প্রেসিডেন্ট, ঢাকা মেডিকেল কলেজের সাবেক মেডিসিন বিভাগের প্রধান এবং পপুলার মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডাঃ এইচএএম নাজমুল আহসান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল ইউনিভার্সিটি এর মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডাঃ মোঃ মুজিবুর রহমান এবং টিএমএসএস মেডিকেল কলেজের কার্ডিওলজির বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ মোঃ মাহফুজুল ইসলাম। এছাড়াও টিএমএসএস মেডিকেল কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকা, চিকিৎসক এবং কর্মকর্তাবৃন্দ ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় অংশগ্রহণ করেন। এতে টিএমএসএস গ্র্যান্ড হেল্থ সেক্টর পরিচালিত চিকিৎসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৩০০ জন ছাত্র-ছাত্রীরা অংশগ্রগণ করেন। ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন দেশের নগর ও গ্রামাঞ্চলের মানুষের মধ্যে দিন দিন উচ্চ রক্তচাপের ব্যাপকতা বাড়ছে। খাদ্যাভাসে প্রয়োজনের অতিরিক্ত লবণ উচ্চ রক্তচাপের প্রধান কারণ। উচ্চ রক্তচাপকে বিশ্বব্যাপী নীরব ঘাতক হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে। দিন দিন উচ্চ রক্তচাপ মানুষের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে। উচ্চ রক্তচাপের কারণে মস্তিষ্কের রক্তক্ষরণ, হার্ট অ্যাটাক, কিডনি বিকল ও চোখের রেটিনা নষ্ট হয়ে যেতে পারে। উচ্চ রক্তচাপ মানুষের স্ট্রোক হওয়ার প্রবণতা, হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হওয়া, কিডনি সমস্যার অন্যতম কারণ। উন্নয়নশীল দেশগুলোতে এর ব্যাপকতা বেড়েই চলছে। বাংলাদেশে প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে উচ্চ রক্তচাপের রোগীর সংখ্যা আরো বাড়ছে। উচ্চ রক্তচাপের নিয়ন্ত্রণের উপায় সম্পর্কে বক্তারা আরও বলেন, উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্ত রোগীর রক্তচাপ কমাতে নিম্নমাত্রায় লবণ, ফল, শাকসবজি, স্নেহবিহীন দুগ্ধজাত খাদ্য ও তেল কম খাওয়া ইত্যাদি অনেকটা সাহায্য করে। ধূমপান ছেড়ে দেয়া সরাসরি রক্তচাপ না কমালেও উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্ত রোগীর জন্য এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, কারণ এর ফলে উচ্চ রক্তচাপের বেশ কিছু উপসর্গ যেমন- স্ট্রোক অথবা হার্ট অ্যাটাক নিয়ন্ত্রণে আসে। উচ্চ রক্তচাপ মৃদু হলে সেটা সাধারণত খাদ্য নিয়ন্ত্রণ, ব্যায়াম এবং শারীরিক সক্ষমতা বৃদ্ধির মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করা যায়। ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভার আহ্বায়ক ছিলেন টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ ও রফাতুল্লাহ্ কমিউনিটি হাসপাতালের মেডিসিন বিভগের অধ্যাপক ডাঃ মোঃ জাকির হোসাইন। আলোচনা সভা পরিচালনা করেন কোভিড ইউনিটের ইনডোর মেডিকেল অফিসার ডাঃ প্রিয়াংকা কন্ডু।