জাপান সরকারের অর্থায়নে টিএমএসএস মেডিকেলে করোনারী ও ট্রমা চিকিৎসার মেশিনারিজ স্থাপন এবং সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন

টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ ও রফাতুল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতাল ঠেঙ্গামারা বগুড়ায় গতকাল করোনারী ও ট্রমা রোগীদের চিকিৎসা প্রদানের জন্য জাপান সরকারের অর্থায়নে মেশিনারীজ স্থাপন ও সেবা কার্যক্রম অন লাইন জুম প্লাটফর্মের মাধ্যমে উদ্বোধন করেন জাপান দূতাবাসের সেকেন্ড সেক্রেটারী (ইকোনমিক ও ডেভেলোপমেন্ট কর্পোরেশন) কেনজি ইবিহারা।

টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ ও রফাতুল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতাল (টিএমসিও আরসিএইচ) ঠেঙ্গামারা বগুড়ায় গতকাল সোমবার করোনারী ও ট্রমা রোগীদের চিকিৎসা প্রদানের জন্য জাপানী দূতাবাসের অর্থায়নে মেশিনারীজ স্থাপন এবং সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়।

অন লাইন জুম প্লাটফর্মের মাধ্যমে কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন জাপান দূতাবাসের সেকেন্ড সেক্রেটারী (ইকোনমিক ও ডেভেলোপমেন্ট কর্পোরেশন) কেনজি ইবিহারা। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন বাংলাদেশ ও জাপানের বন্ধুত্ব দীর্ঘদিনের। এই বন্ধুত্ব অটুট রাখেতে জাপান সরকার বাংলাদেশের মানুষের কল্যাণে কাজ করছে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত মানুষদের সেবা প্রদানের লক্ষেই জাপান সরকার বাংলাদেশে অবস্থিত জাপান দূতাবাসের মাধ্যমে এই প্রকল্প গ্রহণ করেছে। জুম প্লাটফর্মে যুক্ত হয়ে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন টিএমএসএস‘র প্রতিষ্ঠাতা নির্বাহী পরিচালক ও টিএমএসএস মেডিকেল কলেজের চেয়ারম্যান অধ্যাপিকা ড. হোসনে আরা বেগম, টিএমএসএস স্বাস্থ্য সেক্টরের নির্বাহী পরামর্শক অধ্যাপক ডাঃ মওদুদ হোসেন আলমগীর পাভেল। অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে আরও বক্তব্য রাখেন টিএমএসএস মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ মোঃ শাহজাহান আলী সরকার, স্বাগত বক্তব্য রাখেন টিএমএসএস এর উপ-নির্বাহী পরিচালক ডাঃ মোঃ মতিউর রহমান। সভাপতিত্ব করেন টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ ও রফাতুল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ এ.এস.এম বরকতুল্লাহ। মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে টিএমএসএস, টিএমএসএস হেলথ সেক্টর ও এই প্রজেক্টের কার্যক্রম অতিথিদের সামনে তুলে ধরেন হেল্থ সেক্টরের আরপি এন্ড ডি’র কো-অর্ডিনেটর মোঃ রহিদুল ইসলাম। উল্লেখ্য জাপান সরকারের অর্থায়নে বগুড়া জেলার করোনারী ও ট্রমা চিকিৎসা সেবা ক্ষমতা শক্তিশালী করতে মেডিকেল যন্ত্রপাতি স্থাপন প্রকল্পের আওতায় টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ ও রফাতুল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতালে এই যন্ত্রপাতি স্থাপন করা হয়েছে।